বিশেষ খবর

ঢাকায় ‘কানেক্ট বাংলাদেশ’ এর মতবিনিময় সভা

ক্যাম্পাস ডেস্ক সংবাদ
img

সম্প্রতি রাজধানীর ৩৩ তোপখানাস্থ সবুজ ছায়া রেস্টুরেন্টে বিশ্বব্যাপি প্রবাসীদের অধিকার আদায়ে প্রতিষ্ঠিত ‘কানেক্ট বাংলাদেশ’ এর মতবিনিমিয় সভা অনুষ্ঠিত হয়। জানা যায়, বাংলাদেশের উন্নয়ন ও সারা বিশ্বের প্রবাসীদের স্বার্থ, অধিকার, দাবি আদায় করার লক্ষ্যে বিশ্বব্যাপী প্রবাসীদের একত্রিত করে সম্মিলিত এক আওয়াজের মধ্য দিয়ে গণতান্ত্রিক ও গঠণতান্ত্রিকভাবে বাংলাদেশ সরকার ও সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সাথে লিঁয়াজোর মাধ্যমে অধিকার আদায় ও প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ‘কানেক্ট বাংলাদেশ’ নামক নতুন এই সংগঠনের আত্মপ্রকাশ।
সংগঠনের কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক আমেরিকা প্রবাসী লুৎফা হাসীন রোজী’র সভাপতিত্বে বিভিন্ন দেশের কেন্দ্রীয় সমন্বয়কসহ বাংলাদেশের বিশিষ্ট আইনজীবী ও সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন। মতবিনিময় সভায় বক্তারা বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে প্রবাসী বাংলাদেশিদের অধিকার আদায়ে ‘কানেক্ট বাংলাদেশ’ অঙ্গীকারবদ্ধ। প্রবাসীদের ভোটাধিকার, বিমান বন্দরে হয়রানি বন্ধ, প্রবাসে কেউ মারা গেলে দেশে মৃতদেহ হস্তান্তর, দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে প্রবাসীদের বিনিয়োগে উৎসাহিত করা সহ নানান কাজে এই সংগঠনের নেতারা সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ করে যাচ্ছেন।
অনুষ্ঠানে বিভিন্ন দেশের কেন্দ্রীয় সমন্বয়কদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জার্মান প্রবাসী মোঃ ফজলুর রহমান (কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক), কানাডা প্রবাসী মোহাম্মদ ইলিয়াছ মিয়া (কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক), আমেরিকা প্রবাসী রফিকুল ইসলাম (কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক), সুইজারল্যান্ড প্রবাসী কাজী আসাদুজ্জামান (কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক), লন্ডন ও ইতালি প্রবাসী নুরুল আমিন (কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক), ইতালি প্রবাসী আখি সীমা কাওসার (সমন্বয়ক) প্রমুখ।
এছাড়াও সভায় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের বাংলাদেশি সমন্বয়ক মোঃ আবদুন্ নূর দুলাল (কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক), যিনি সভা সঞ্চালনার দায়িত্ব পালন করেন। অন্যান্যদের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন এ্যাডভোকেট এম. এনামুল হক, মোঃ আব্দুল হান্নান চৌধুরী, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মাসুদুর রহমান, ব্যারিস্টার নিশাত মাহমুদ।
বিশেষ নিমন্ত্রণে সাংবাদিক ও মিডিয়া ব্যক্তিত্বদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস পত্রিকার সম্পাদক ড. এম হেলাল, টিভি উপস্থাপক ও আবৃত্তিকার মামুন ইমতিয়াজ, দৈনিক সমকালের স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট আবু কাওসার, ‘এনআরবি নিউজ’ সম্পাদক ওমর আলী, পাক্ষিক প্রবাস মেলা পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক শহীদ রাজু, কুয়ালালামপুর প্রবাসী সাংবাদিক রফিক আহমেদ খান প্রমুখ।
কানেক্ট বাংলাদেশ : বাংলাদেশের উন্নয়ন ও প্রবাসীদের অধিকার
‘কানেক্ট বাংলাদেশ’ ১২ মিলিয়ন প্রবাসীকে স্বদেশের উন্নয়নে সম্পর্কিত ও একত্রিত করার লক্ষ্যে গঠিত। প্রবাসীদের সামর্থ্য ও যোগ্যতা আজ অনেক উচ্চতর পর্যায়ে উপনীত হয়েছে। প্রবাসীরা আজ প্রায় সকল উন্নত শহর, নগর ও বন্দর এর সংস্কৃতি, সভ্যতা, উৎপাদন কলাকৌশল ও প্রযুক্তিজ্ঞানে সমৃদ্ধ। হাজার হাজার প্রবাসী আজ পৃথিবীর বড় বড় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও জ্ঞানের আলোকে আলোকিত; যারা যুক্তরাজ্য, আমেরিকা, ইউরোপের অপরাপর দেশসমূহ, কানাডা, অষ্ট্রেলিয়া, চীন, সিঙ্গাপুর, মালেশিয়া ইত্যাদি দেশসমূহের বড় বড় বিদ্যাপীঠে অধ্যয়ন করেন।
স্বাধীনতাত্তোর, বিশেষ করে ৮০’ ও ৯০’ এর দশকে লক্ষ লক্ষ বাংলাদেশি কর্ম ও জীবিকার অন্বেষণে এবং জ্ঞানলিপ্সায় পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে চলে যান। তাদের অধিকাংশই জীবনের বেশিরভাগ সময় প্রবাসে অতিবাহিত করেছেন। অনেকে পরিবার পরিজন নিয়ে স্থায়ীভাবে বিদেশে বসবাস করছেন। ইউরোপ ও আমেরিকায় অনেক প্রবাসী রাজনীতিতে জড়িত হয়ে সংসদ সদস্য ও মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন।
ব্যবসা, বাণিজ্য ও নানা পেশায় ব্যাপক সফলতা অর্জন করেছেন। যারা ব্যক্তিগত ও পারিবারিক সকল ধরনের আর্থিক দৈন্যতা দূর করতে সমর্থ হয়েছেন।
প্রবাসীরা এই সকল দেশের গণতান্ত্রিক রাজনীতি, সংস্কৃতি ও সভ্যতার উন্নয়নের ইতিহাস, স্বাধীন নিরপেক্ষ নির্বাচন ও বিচার ব্যবস্থা, সার্বজনীন শিক্ষা, চিকিৎসা ও বাসস্থানের নিশ্চয়তার নিয়মাবলী, প্রশাসনের নীচ থেকে উপর পর্যন্ত প্রতিটি স্তরের (ইউনিয়ন, উপজেলা, জেলা ও কেন্দ্র ইত্যাদি) প্রশাসনিক কাঠামো ও সাংবিধানিক ক্ষমতার বন্টন (বিভিন্ন স্তরে বিকেন্দ্রকৃত স্বশাসিত প্রতিষ্ঠান সমূহের কার্যক্রম পরিচালনার রীতিনীতি) সম্পর্কে খুবই জ্ঞাত। একইভাবে তারা মালিক, শ্রমিক, কর্মচারী, সরকারি কর্মজীবী ও ভূমি মালিকানাসহ এই সকল পক্ষের ন্যায্য অধিকারের ন্যায্য হিস্যা সম্পর্কেও ওয়াকেফহাল। জনগণের স্বাধীনতা ও অধিকার সম্পর্কিত সকল ক্ষেত্রে স্বাধীন, দেশোপযোগী বিচার ও বিবেচনা এবং সম্মিলিত মতামত গড়ে তোলার সত্যিকার সহনশীলতা ধারণ করেন।
প্রবাসীদের এই সকল সক্ষমতা বাংলাদেশের জনগণের ব্যক্তিগত, পারিবারিক, সামাজিক ও নাগরিক জীবনে শৃংখলা প্রতিষ্ঠায় বড় ভূমিকা রাখতে পারবে। একইভাবে তাদের আয়ত্বাধীন উন্নত বিশ্বের প্রযুক্তিজ্ঞান; নানা কর্মে দক্ষতা ও অর্থনৈতিক সামর্র্থ্য আজ আমাদের জাতীয় উন্নয়নে খুবই দরকার। এছাড়াও প্রবাসীদের উন্নত রুচিশীল ও চারিত্রিক দৃঢ়তা; দেশের জনগণের প্রতি পোড় খাওয়া মমতা; দুর্নীতি, স্বজনপ্রীতি ও মোড়লীপনার প্রতি বিমুখতা আজ আমাদের দেশের জন্য খুবই প্রয়োজন। ‘কানেক্ট বাংলাদেশ’ সকল প্রবাসীকে এই সংগঠনের পতাকাতলেল সমবেত হওয়ার ও স্বদেশের উন্নয়নে বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখার আহবান জানায়।
কানেক্ট বাংলাদেশের স্লোগান
* বাংলাদেশের উন্নয়ন ও প্রবাসীদের অধিকার।
এছাড়াও অন্যান্য সেøাগান
* প্রবাসীরা সোচ্চার, গড়বে তারা সমান নাগরিক অধিকার।
* প্রবাসীদের অঙ্গীকার, স্বদেশের উন্নয়নে তারা বড় হাতিয়ার!

কানেক্ট বাংলাদেশ এর আদর্শ
ভাতৃত্ববোধ, শান্তি ও উন্নয়ন।
কানেক্ট বাংলাদেশ এর উদ্দেশ্য সমূহ
ক. স্ব স্ব দেশে প্রবাসীদের সমস্যাসমূহ চিহ্নিতকরণ ও সমাধানে বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণ করা।
খ. বাংলাদেশে ও বিদেশে ১২ মিলিয়ন প্রবাসীর সার্বিক সাধারণ সমস্যাসমূহ চিহ্নিতকরণ ও সমাধানে জাতীয় আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণ করা। যেমন
১. কানেক্ট বাংলাদেশ এ পক্ষ থেকে স্ব স্ব দূতাবাসের মাধ্যমে প্রবাসীদের ভোটার পরিচয়পত্র পাওয়ার ও ভোট প্রদানে সুযোগ দেয়ার দাবি করছে।
২. কানেক্ট বাংলাদেশ নাগরিক আইন পাশ করার মাধ্যমে দ্বৈত নাগরিকদের অধিকার সীমিতকরণের সকল প্রচেষ্টা বন্ধ করে দ্বৈত নাগরিকসহ সকল প্রবাসীদের বিশেষ সুরক্ষা দেয়ার নীতি ও আইন প্রণয়নের আহবান করছে।
৩. কানেক্ট বাংলাদেশ প্রবাসীদের সার্বিক সহযোগিতায় (প্রয়োজনীয় তথ্য, বৈধতা, কাজ, থাকা, খাওয়া, বিনিয়োগ, উন্নয়ন, সম্পত্তির অধিকার, নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ ইত্যাদি) বাংলাদেশের প্রতিটি জেলায়, প্রতিটি দূতাবাসে ও প্রতিটি বিমান বন্দরে একটি বিশেষায়িত দপ্তরর গড়ে তোলার আহবান করছে।
৪. কানেক্ট বাংলাদেশ সকল প্রবাসীকে পারস্পারিক সহযোগিতা, সৌহার্দ্য, বন্ধুত্ব ও অংশীদারিত্ব মূলক কার্যক্রমে অংশগ্রহণের আহবান করছে। যাতে সম্মিলিক উদ্যোগ ও প্রচেষ্টায় নিজেদের সার্বিক উন্নতি সহজ হয় এবং নিজেদের মধ্যে বলিষ্ঠ ঐক্য গড়ে উঠে।
৫. কানেক্ট বাংলাদেশ সকল প্রবাসীকে স্বদেশের গৌরবগাথা, সংস্কৃতি, মূল্যবোধ, ট্যুরিজম, সৌন্দর্য্য, উন্নয়ন ও বিদেশ নীতি বিশ্ব সমাজে তুলে ধরার আহবান করছে।
গ. দেশের উন্নয়নে প্রবাসীদের অগ্রণী ভুমিকা পালনের সুযোগ দেওয়া। যেমন
১. কানেক্ট বাংলাদেশের পক্ষ থেকে প্রবাসীদের জন্য একটি বিশেষ শিল্পাঞ্চল গড়ে তোলার দাবি করছে। এইসব শিল্পাঞ্চলে গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানি ও সহজ যোগাযোগ ব্যবস্থা নিশ্চিত করারও দাবি করছে।
২. সমুদ্রের ব্লু ইকোনমিতে বিনিয়োগ এর জন্য প্রবাসীদের বিশেষ সুযোগ দেয়ার আহবান করছে।
৩. সমুদ্রের বৃহত্তর পরিসরে মৎস্য আহরণ, প্রক্রিয়াজাতকরণ ও বিপনের জন্য প্রবাসীদের পরামর্শ নেয়া ও তাদের অন্তর্ভুক্ত করার দাবি করছে।
৪. কানেক্ট বাংলাদেশ প্রবাসীদের মেধা, প্রজ্ঞা, বিচক্ষণতা, অভিজ্ঞতা, প্রযুক্তিজ্ঞান, কারিগরি দক্ষতা ইত্যাদি বিষয়াদি বাংলাদেশের উন্নয়নে কাজে লাগিয়ে দেশের সার্বিক বিকাশে এক অনন্য অবদান রাখার সংকল্প প্রকাশ করছে।
৫. কানেক্ট বাংলাদেশ উন্নত দেশের গণতান্ত্রিক রীতিনীতি, সুশাসন, স্বাধীন বিচার ব্যবস্থা, বিকেন্দ্রীকৃত গণতান্ত্রিক প্রশাসন, নির্বাচনি ব্যবস্থার উন্নয়নের ইতিহাস ও সকলের নিকট গ্রহণযোগ্যতা ইত্যাদি বিষয়াদি নিয়ে প্রবাসীদের জ্ঞান দেশের প্রয়োজনে কাজে লাগানোর প্রত্যাশা করছ
৬. কানেক্ট বাংলাদেশ বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব সংরক্ষণে, বাংলাদেশের রাজনীতি ও অর্থনীতি সমৃদ্ধকরণে, মানুষের জীবনমান উন্নয়নে, মানবিক অধিকার ও মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠায় বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখার অঙ্গীকার প্রকাশ করছে। ৭. সার্বিক অর্থে কানেক্ট বাংলাদেশ একটি উন্নত বাংলাদেশ ও সুন্দর পৃথিবী বিনির্মাণে সক্রিয় ভূমিকা রাখার দৃঢ়তা প্রকাশ করছে।
কানেক্ট বাংলাদেশকে বাংলাদেশের পক্ষে দৃঢ়ভাবে ও কার্যকরীভাবে প্রতিনিধিত্ব করছেন এডভোকেট মোঃ আবদুন্ নূর দুলাল (সমন্বয়ক, বাংলাদেশ)। এটি একটি যৌথ নেতৃত্বের মডেল। আগামী ২৬, ২৭ ও ২৮ অক্টোবর ইতালির রোমে কানেক্ট বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।


আরো সংবাদ

শিশু ক্যাম্পাস

বিশেষ সংখ্যা

img img img

আর্কাইভ